বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নাদিয়ার আত্মপ্রত্যয়

0

95275_Nadiaইউকেবিডি ডেস্ক :: বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নাদিয়া হোসেন জয় করেছেন বৃটিশদের মন। তিনি একটি রান্না বিষয়ক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে ক্রমাগত এগিয়ে চলেছেন বিজয়ের পথে। এমনিতেই টুইটারে তার অনুসারীর সংখ্যা ২৪ হাজার ৫০০। তারা তাকে উৎসাহ দিয়ে, অনুপ্রেরণা দিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথ সুগম করে দিচ্ছেন। বিবিসি১ এর প্রোগ্রাম ‘গ্রেট বৃটিশ বেক অফ’ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন। এ নিয়ে বৃটিশ মিডিয়ায় বেশ ফলাও করে প্রকাশিত হচ্ছে প্রতিবেদন। সম্প্রতি তিনি এই সিরিজের প্রতিযোগিতায় যখন বিজয়ী হন তখন তার এক ছেলে হাসপাতালে। ছেলেকে হাসপাতালে রেখে তিনি অংশ নেন ওই প্রোগ্রামে। মনকে বেঁধেছেন শক্ত করে। সত্যি সত্যি সেই প্রতিযোগিতায় তিনি জিতে গেলেন। বিজয়ের জন্য তিনি যতটুকু খুশি তার চেয়ে বড় বেশি খুশি ছেলেকে হাসপাতালের বেডে ওই প্রতিযোগিতা দেখতে দেয়ার ব্যবস্থা করে দেয়ায়। এ জন্য তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

নাদিয়া হোসেন একজন গৃহিনী। টেকনিক্যাল বিষয়ক ব্যবস্থাপক আব্দালের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে। তিনি তিন সন্তানের মা। এর মধ্যে বড় থেকে ছোট পর্যায়ক্রমে সন্তানদের বয়স ৯ বছর, ৮ বছর ও চার বছর। স্বামী সন্তান নিয়ে তার বসবাস লুটনে। নাদিয়া বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত। এ কথা আগেই বলা হয়েছে। তিনি ইসলাম ধর্মের অনুসারী। পরেন স্কার্ফ। নাদিয়া নিজেই বলেন, আমি শুরুতে বেশ নার্ভাস ছিলাম। কারণ আমি একজন মুসলিম। স্কার্ফ পরি। আমার মধ্যে দ্বিধা ছিল যে আমি বেকিং করে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবো কিনা। কিন্তু যখন বিচারক মেরি বেরি ও পল হলিউড আমার পক্ষে রায় দিলেন তখন আনন্দে কান্না পেয়ে গিয়েছিল। নাদিয়া বেকিং করে চকোলেটের ওপর সলটেড কারামেল আর চকোলেট ক্রিম ব্যবহার করেন তা এক অতুলনীয় স্বাদের হয়।

Share.

Leave A Reply

7 − two =