কিশোরগঞ্জের দুই যুদ্ধাপরাধীর প্রাণদণ্ড

0

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে রাজাকার কমান্ডার সৈয়দ মো. হুসাইন ও মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মুক্তিযুদ্ধে কিশোরগঞ্জের নিকলি থানা রাজাকার কমান্ডার হুসাইন ও ইউনিয়ন রাজাকার কমান্ডার মোসলেমের বিরুদ্ধে আনা হত্যা-গণহত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, আটক, অপহরণ ও নির্যাতনের ছয়টি অভিযোগের সবগুলোই সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে।

এর মধ্যে গণহত্যা ও ধর্ষণের দুটি অপরাধে (৩ ও ৪ নম্বর অভিযোগ) সর্বোচ্চ সাজা দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। ৪ নম্বর অভিযোগে দুজনই আর ৩ নম্বর অভিযোগে হুসাইন এককভাবে পেয়েছেন মৃত্যুদণ্ডাদেশ। বুধবার এ রায় দেন চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যর ট্রাইব্যুনাল। বিচারিক প্যানেলের অন্য দুই সদস্য হচ্ছেন বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলাম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদী।

মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, দুই আসামি একাত্তরে বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। তাদের মধ্যে হুসাইন নিকলি থানা এলাকায় রাজাকার দারোগা হিসেবে এবং মোসলেম প্রধান নিকলি ইউনিয়নে রাজাকার কমান্ডার হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তারা তখনকার কিশোরগঞ্জ মহকুমার বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত ও যৌথভাবে মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটিত করেন বলে এ মামলার বিচারে উঠে এসেছে। হুসাইনের বড় ভাই সৈয়দ মো. হাসান ওরফে হাছেন আলীকেও যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃতুদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। ভাইয়ের মতো হাছেন আলীও পলাতক।

Share.

Leave A Reply