২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা আওয়ামী লীগের পরিকল্পিত : রিজভী

1000
  |  শনিবার, আগস্ট ২২, ২০২০ |  ৬:৩৪ অপরাহ্ণ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ দাবি করেছেন তৎকালীন বিএনপি সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতেই ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগ পরিকল্পিতভাবে গ্রেনেড হামলা করেছে।শনিবার (২২ আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয়তাবাদী মৎসজীবী দল আয়োজিত ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি এবং সদ্যপ্রয়াত বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা কথা বলেন।বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা ছিল তৎকালীন বিএনপি সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করা এবং ছলেবলে কৌশলে ক্ষমতায় এসে বিএনপি নেতৃবৃন্দকে বিপর্যস্ত করে অভিযুক্ত করা। বড় ধরনের দেশীয় এবং বিদেশি আওয়ামী চক্রান্ত-ষড়যন্ত্রের ফল হচ্ছে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা এবং তারপর এর বিচারপ্রক্রিয়া। সবাই দেখছে, কেমন বিচার চলছে। সই নাই স্বাক্ষর নাই কোনো কিছুই নাই, তারপরও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমরা এমন একটি অবিচারের রাজ্যে বাস করছি এখানে চলছে ভয়ঙ্কর অবিচার। ন্যায়বিচার শুধু নিরুদ্দেশ নয়, ন্যায়বিচারের অর্থ কী এটা আগামী দিনের ছাত্ররা গবেষণা করার সুযোগ পাবে না কারণ দেশে চলছে কর্তৃত্ববাদী একদলীয় শাসন। সরকার থেকে যা বলা হবে সেভাবেই ইতিহাস রচনা করা হবে, সেভাবেই গবেষণা হবে সেভাবেই লেখাপড়া করতে হবে। সরকারের বিধিনিষেধের মধ্যে গবেষণা করারও সুযোগ থাকে না এটাকেই বলে দুঃশাসন।’

Advertisement

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘২১ আগস্ট বোমা হামলা নিয়ে মিথ্যাচার অল্পস্বল্প নয়। সরকারদলীয় নেতাকর্মীরা কোরাস গাইছেন। গানের মধ্যে যেমন কোরাস গায় সেভাবে কোরাস গাইছেন, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে অন্যান্য এমপি-মন্ত্রী। আমরা প্রথম থেকেই দেখে আসছি এই হামলা নিয়ে বর্তমান সরকার অর্থাৎ সেই সময়ের বিরোধীদলীয় নেতা তখন থেকেই কিন্তু ডাইভার্ট করার চেষ্টা করছে। আসল ঘটনাকে ঢেকে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে।তিনি বলেন, ‘এটা অত্যন্ত সুস্পষ্ট যে, বর্তমান সরকার সে সময়ের বিরোধী দল এই ব্লেম দেওয়ার জন্যই পরিকল্পিত ঘটনা ঘটিয়েছে। সেদিন বোমা হামলার পর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া বিচলিত হয়েছিলেন। তিনি দৌড়ে সিএমএইচে আইভি রহমানসহ আরও যারা আহত হয়েছিলেন তাদের দেখতে গিয়েছিলেন খোঁজ-খবর নিয়েছিলেন। সেখান থেকে দৌড়ে এসেছিলেন সুধাসদনে, কিন্তু সেদিন তাকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।’

১/১১ সরকারের কথা উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আন্দোলনের ফসল ১/১১ সরকার কিন্তু ২১ আগস্টের হামলার ঘটনায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ফাঁসায়নি। আপনারা জানেন ২০০৮ সালের নির্বাচন ছিল, কিন্তু আন্তর্জাতিক মাস্টারপ্ল্যানের একটি নির্বাচন, ওই নির্বাচনে তিনি ক্ষমতায় এসেছিলেন। ক্ষমতায় আসার পর আবার সম্পূরক চার্জশিট দেওয়া হলো, আবার নতুন করে তদন্ত করা হলো। যিনি তদন্ত করলেন তিনি আওয়ামী লীগের নমিনেশন কিনেছিলেন, নৌকা মার্কার ছবি দিয়ে তিনি তার এলাকায় পোস্টার মেরেছেন। এটাও তো একটা কারণ। কারণ আওয়ামী লীগ পরিকল্পিতভাবে ঘটনাটা ঘটিয়ে বিএনপি নেতৃত্বকে পরিকল্পিতভাবে ফাঁসানোর জন্য।’

সরকারের দুর্নীতির নানা চিত্র তুলে ধরে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আজ যদি আওয়ামী লীগকে একটা ঘর ধরি সেই ঘরের ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে বের হয় পাপুল তাদের স্যুটকেস থেকে বের হয় সাহেদ, তাদের আলমারি থেকে বের হয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকা। সবকিছুই তো আওয়ামী লীগের ঘরের ভেতর থেকে বের হচ্ছে। ফরিদপুরের ছাত্রলীগের সভাপতি তার যদি শত শত কোটি টাকা পাচার হয় বাংলাদেশ থেকে তাহলে আর কী থাকতে পারে?’জাতীয়তাবাদী মৎসজীবী দলের সভাপতি রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সদস্যসচিব আব্দুর রহিমের সঞ্চালনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, আব্দুল খালেক, সহ-ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

Advertisement