আজ থেকে ইংল্যান্ডে বিয়ের অনুষ্ঠানসহ বহু ক্ষেত্রে লকডাউন শিথিল হচ্ছে

1512
  |  শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০ |  ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কমাতে গত মার্চ মাসে লকডাউনে যায় ব্রিটেন।করোনা পরিস্থিতি বেশ কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আসার পর ইংল্যান্ডসহ ওয়েলস,স্কটল্যান্ড ও উত্তর আয়ারল্যান্ডে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই শিথিল করা হয় লকডাউন।ইংল্যান্ডে আজ ১৪ আগস্ট শনিবার থেকে আরো বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে লকডাউন শিথিল করেছে সরকার।এর ফলে আরও বিউটি ট্রিটমেন্ট,ছোট বিয়ের অনুষ্ঠান, লাইভ ইনডোর পারফরম্যান্সের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বোলিং অ্যালি,ক্যাসিনো এবং সফট প্লে সেন্টারগুলিও আবারো খুলার অনুমতি দিয়েছেন।তবে ফেইস মাস্ক যেসকল স্থানে পড়া বাধ্যতামূলক তা আরো কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। কেউ অমান্য করলে বাড়নো হয়েছে জরিমানার পরিমান।এদিকে ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডে যারা হলিডে গিয়েছে তাদেরকেও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। আইন অমান্য করলে ১হাজার পাউন্ড পর্যন্ত জরিমা দিতে হতে পারে।ইংল্যান্ডে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগের সৃস্টি হলে গত ১লা আগস্ট থেকে লকডাউন আরো শিথিলের যে পরিকল্পনা ছিলো সেখান থেকে সরে আসে সরকার। ফলে আজ ১৪ আগস্ট থেকে আরো নতুন নতুন কয়েকটি ক্ষেত্রে শিথিলতার কথা ঘোষণা করা হয়।

Advertisement

সর্বশেষ ঘোষণায় যেসকল প্রতিষ্ঠানকে আবারো খুলার অনুমতি দেয়া হয়েছে: সেগুলোর মধ্যে হচ্ছে ইনডোর থিয়েটার, মিউজিক এবং পারফরম্যান্সের ভেন্যুর স্থানগুলো সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শ্রোতাদের জন্য খুলার অনুমতি দেয়া হয়েছে।বিয়ের ক্ষেত্রে ৩০ জন অতিথি এক সাথে বসে খাবার এবং নব দম্পতিকে অভ্যর্থনা জানানোর অনুমতি দেয়া হয়েছে।পাইলট প্রকল্প হিসেবে কিছু কিছু স্পোটিং ইভেন্ট চালু, উইকন্ডে শেফিল্ডে ওয়ার্ল্ড স্নুকার চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়া হয়েছে।ক্যাসিনো, বোলিং অ্যালিস, স্কেটিং রিংন্স এবং সফট প্লে সেন্টারগুলো আবারো চালুর অনুমতি প্রদান ।সৌন্দর্য পরিসেবাগুলির মধ্যে ফেসিয়াল, আইব্র থ্রেডিং, আইল্যাশ ট্রিটমেন্টস, মেকআপ অ্যাপ্লিকেশন এবং মাইক্রোব্লেডিং চালু হচ্ছে।সর্তকতা হিসেবে আগামী ১লা অক্টোবর থেকে কনফারেন্স ভেন্যুগুলো বিজনেস ইভেন্ট চালু করতে পারবে। তবে স্থানীয়ভাবে যেসকল জায়গায় লকডাউন বহাল রয়েছে, সেসকল জায়গায় নতুন নির্দেশনা কার্যকর হবেনা বলে জানিয়েছে সরকার।একইভাবে স্কটল্যান্ড, ওয়েলস ও উত্তর আয়ারল্যান্ডের স্থানীয় সরকারকে লকডাউন শিথিলের নিজেস্ব ক্ষমতা দেয়া হয়েছে।

Advertisement