নিউজিল্যান্ডে প্রবাসী বাংলাদেশি দম্পতির জেল

557
  |  রবিবার, মে ১২, ২০১৯ |  ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম ও নাফিসা আহমেদকে কর্মচারী নির্যাতনের ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় কারাদণ্ড দিয়েছেন অকল্যান্ড জেলা আদালত।জানা গেছে,মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম ও নাফিসা আহমেদ নামে ওই দম্পতি বাংলাদেশ থেকে লোক নিয়ে তাদের নামমাত্র পারিশ্রমিকে কাজ করাতেন ও বিভিন্নভাবে নির্যাতন করতেন।এ ঘটনায় দোষী মোহাম্মদ আতিকুল ইসলামকে ৪ বছর ৫ মাস এবং তার স্ত্রী নাফিসাকে ২ বছর ৬ কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।জানা গেছে,২০১৪-২০১৬ এর সময়কালের মধ্যে তারা সান্দ্রিংহাম ‘রয়্যাল সুইটস অ্যান্ড ক্যাফে’তে ৫ জন বাংলাদেশিকে নিয়োগ দিয়েছিলেন।নিউ জিল্যান্ডে পৌঁছানোর পরপরই তাদের পাসপোর্ট নিয়ে নেয়া হয়।এক বছরের বেশি সময় ধরে সপ্তাহে সাত দিন করে ১৪ ঘণ্টা কাজ করে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন।এত কষ্ট করার পরও এসব শ্রমিক তাদের কাজের সঠিক মূল্যায়ন পাননি।তাদের ঠিকমতো মজুরি দেয়া হতো না।

মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম ওরফে কাফি ইসলামের বিরুদ্ধে শ্রমিক নির্যাতনের ১০টি,অভিবাসন সংক্রান্ত সাতটি ও আদালতকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টার তিনটি অপরাধ প্রমাণিত হয়।এবং নাফিসা আহমেদ পেশায় হিসাবরক্ষক।তার বিরুদ্ধেও যৌথভাবে পাঁচ কর্মচারীকে সাতটি নির্যাতনের ঘটনার প্রমাণ পাওয়া যায়।বাংলাদেশে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেখে ওই দুই শেফ নিউজিল্যান্ড যান।সেখানে পৌঁছানোর পরপরই তাদের পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করেন আতিকুল ও নাফিসা।ভুক্তভোগী দুই শেফের ওপর অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মামলার বিচারক ব্রুক গিবসন।আদালতে তিনি বলেন,ক্যাফের কর্মচারীরা টানা কাজ করে গেলেও তাদের মাত্র এক ঘণ্টার ছয় ডলার পরিশোধ করা হতো।বাকি সময় বা ছুটিরদিন কাজের জন্য তারা কোনো মজুরি পাননি।এভাবে দুই বছর ধরে তাদের ওপর নির্যাতন করা হয়েছে।

Advertisement