৪ মোবাইল অপারেটরের কাছে রাজস্ব বকেয়া ১৫ হাজার কোটি

2180
  |  সোমবার, এপ্রিল ২৯, ২০১৯ |  ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

সরকারি ও বেসরকারি মোবাইল কোম্পানিগুলোর ১৫ হাজার ১৬০ কোটি ৩১ লাখ টাকা রাজস্ব বকেয়া রয়েছে বলে জানিয়েছেন ডাক,টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।তিনি বলেন,সরকারি মোবাইল অপারেটর টেলিটকের কাছে ৩জি স্পেপট্রাম অ্যাসাইনমেন্ট ফি বাবদ ১ হাজার ৫৮৫ কোটি ১৩ লাখ টাকা বকেয়া রয়েছে। গ্রামীণফোনের কাছে ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ,রবি-অজিয়েটার কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা ও বন্ধ সিটিসেলের কাছে বকেয়া রয়েছে ১২৮ কোটি টাকা।রবিবার (২৮ এপ্রিল) স্পিকার ড.শিরিন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনে বেনজীর আহমেদের (ঢাকা-২০) লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য দেন তিনি।

মোস্তাফা জব্বার আরও জানান,বিটিআরসি সরকারি রাজস্ব নিশ্চিতে নিয়মিত সেলফোন কোম্পানিগুলোর অডিট করা হয়।ইতোমধ্যে গ্রামীণ ও রবির অডিট সম্পন্ন হয়েছে।অডিট রিপোর্ট অনুযায়ী,সিটিসেলের নিকট ১২৮ কোটি টাকার রাজস্ব বকেয়া রয়েছে।এ ছাড়া,গ্রামীণফোন লিমিটেডের কাছে অডিট আপত্তির পরিমাণ ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা,রবি আজিয়াটার নিকট ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা।টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের নিকট থ্রিজি স্পেকট্রাম অ্যাসাইনমেন্ট ফি বাবদ ১ হাজার ৫৮৫ কোটি ১৩ লাখ টাকার অডিট আপত্তি রয়েছে।বাংলালিংক কমিউনিকেশন লি.ও এয়ারটেল বাংলাদেশ লি.মোবাইল অপারেটর দুটির অডিট কার্যক্রম শুরুর লক্ষ্যে অডিটর নিয়োগের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।তিনি আরও জানান,এসব বকেয়া পাওয়া পরিশোধে গ্রামীণ ও রবির কাছে চিঠি দেওয়া হয়েছে।এছাড়া সরকারি মোবাইল অপারেটর টেলিটকের কাছে ৩জি স্পেপট্রাম অ্যাসাইনমেন্ট ফি বাবদ ১,৫৮৫.১৩ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে।উক্ত বকেয়া পরিশোধের জন্য বিটিআরসির পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

Advertisement