ফারমার্স ব্যাংকের চিশতীসহ গ্রেপ্তার ৪জন রিমান্ডে

0

নিউজ ডেস্কঃ ১৬০ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় ফারমার্স ব্যাংকের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান ও তাঁর ছেলেসহ চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।আজ মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম গোলাম নবী এ আদেশ দেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের জানান, রিমান্ডে যাওয়া আসামিরা হলেন ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী, চিশতীর ছেলে রাশেদুল হক চিশতী, ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট (এসভিপি) জিয়াউদ্দিন আহমেদ ও ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদুর রহমান খান।

মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর জানান, আজ ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক শামছুল আলম আসামিদের হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। অপরদিকে আসামিপক্ষে তাঁদের আইনজীবীরা রিমান্ডের আবেদন বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক আসামি মাহবুবুল হক চিশতীর পাঁচদিন ও অপর তিন আসামির চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে আসামিদের গ্রেপ্তার করে দুদকের উপপরিচালক মো. সামছুল আলমের নেতৃত্বাধীন একটি দল। রাজধানীর গুলশান থানায় ছয়জনকে আসামি করে একটি মামলা করে দুদক।মামলায় মাহবুবুল হক চিশতীর স্ত্রী রুজী চিশতী ও এবং ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান করপোরেট শাখার প্রাক্তন ব্যবস্থাপক ও বর্তমান সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট দেলোয়ার হোসেনকেও আসামি করা হয়।

নথি থেকে জানা যায়, ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় ব্যাংকের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে মাহবুবুল হক চিশতী গুলশান শাখায় সঞ্চয়ী হিসাব খুলে বিপুল পরিমাণ অর্থ নগদে ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে জমা ও উত্তোলন করেছেন। তিনি বিভিন্ন সময়ে তাঁর স্ত্রী, ছেলে, মেয়েদের ও তাঁদের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের নামে বিভিন্ন শাখার মোট ২৫টি হিসাবে বেশিরভাগ অর্থ নগদ ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে মোট ১৫৯ কোটি ৯৫ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪২ টাকার সন্দেহজনক লেনদেন করেছেন। হিসাবগুলোতে গ্রাহকদের হিসাব থেকে পাঠানো অর্থ স্থানান্তর, হস্তান্তর ও লেয়ারিংয়ের মাধ্যমে গ্রহণ করে এবং নিজেদের নামে ক্রয়কৃত ব্যাংকের শেয়ারের মূল্য পরিশোধের মাধ্যমে সন্দেহজনক লেনদেন করে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ৪ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন বলে দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে।

Share.

Leave A Reply