জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত স্থগিত

0
37

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ইসরাইলের জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করা হলে মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাত ছড়িয়ে পড়বে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস সরানোর বিরুদ্ধে আরব নেতারা।তাদের অভিযোগ, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগুন নিয়ে খেলা করছেন। অনেকে বলেছেন, তার এ পদক্ষেপে মধ্যপ্রাচ্যে চরমপন্থাদের কার্যক্রম বাড়িয়ে দেবে। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বারবার হোয়াইট হাউসকে এ পদক্ষেপ থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

১৯৯৫ সালে বিল ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট থাকাকালে দূতাবাস স্থানান্তরের বিষয়ে মার্কিন কংগ্রেসে একটি আইন পাস হয়। এ বিধানটি চূড়ান্ত হয় ১৯৯৯ সালের ৩১ মে। জাতীয় নিরাপত্তার প্রশ্নে আইনের এ বিধানটির প্রতি সমর্থনের জন্য ৬ মাস পরপর মার্কিন প্রেসিডেন্টদের এটিতে স্বাক্ষর করতে হয়।প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের স্বাক্ষরের সময়সীমা সোমবার শেষ হয়েছে। এজন্যই দূতাবাস সরানোর কানাঘুষা আরও জোরালো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস সরানোর বিষয়টি বিতর্কিত, কারণ জেরুজালেমের পূর্বাঞ্চল যেটি ফিলিস্তিনের সীমান্ত, সেগুলো অবৈধভাবে দখলে নিয়েছে ইসরাইল।তবে দূতাবাস সরানোর ঘোষণা না দিলেও জেরুজালেমে দূতাবাস স্থাপনের জন্য ভবনের নকশা চূড়ান্ত করে ফেলেছে বলে দাবি করেছে মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল ডব্লিউএসবি। তারা জানায়, ইতিমধ্যে ভবনের নকশা চূড়ান্ত করেছেন এক মার্কিন স্থপতি।

সোমবার জেরুজালেম অনলাইন জানায়, ট্রাম্প এখনও দূতাবাস স্থানান্তরের বিষয়টি নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছেন। তবে নতুন দূতাবাস ভবনের পরিকল্পনা ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। কয়েক সপ্তাহ আগে, ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে একজন মার্কিন স্থপতিকে জেরুজালেমে পাঠানো হয়। বর্তমানে তেলআবিবে মার্কিন দূতাবাসটি হোটেলের মতো হলেও নতুন পরিকল্পনায় বেশকিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে।

নতুন ভবনে থাকার জায়গা, জরুরি বহির্গমন, নিরাপদ কক্ষ এবং অন্যান্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।সোমবার ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এইচআর ম্যাকমাস্টারও বলেন, তিনি এখনও জানেন না তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নেয়া হবে কিনা। তিনি বলেন, এই বিষয়ে ট্রাম্পকে তার পরামর্শকরা বেশকিছু বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছেন।’ নিজের নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছিলেন যে, তেলআবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে নেবেন।তবে এখনও সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে পারেননি তিনি। এই পদক্ষেপ বাস্তবায়নের অর্থ হল জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন স্বীকৃতি। আলজাজিরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here