শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে পেরেরার ছক্কায় রংপুরের জয়

0

স্পোর্টস ডেস্কঃ শেষ ওভারে রংপুরের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৪ রান। তাসকিনের প্রথম বলে দুই রান নেন পেরেরা। পরের বলে পয়েন্টের ওপর দিয়ে ছয় হাঁকিয়ে রংপুরকে জয়ের সুবাস দিতে থাকেন তবে পরের বলে দ্রুত রান নিতে গিয়ে রান আউট হন অপর ব্যাটসম্যান নাহিদুল। তাসকিনের করা চতুর্থ বলে আউট হয়ে ফিরে আসেন শাহরিয়ার নাফীস। ততক্ষণে ম্যাচের পরিসংখ্যান বদলে গেছে। আবার জয়ের আশায় বুক বেঁধেছে চিটাগং।পরের পরে দুই রান নেন পেরেরা। উইকেটরক্ষক এনামুল হক বিজয় মাথা ঠান্ডা রেখে থ্রো করলে রান আউট হতে পারতেন পেরেরা।শেষ বলে রংপুরের দরকার ৪ রান। এই বলটা ওয়াইড করে বসেন তাসকিন। দুই রান করলেই ম্যাচটা গড়াবে সুপার ওভারে। স্টেডিয়াম ও টিভি সেটের সামনে বসে থাকা দর্শকদের তখন শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা। শেষ বলে স্লোয়ার মারলেন তাসকিন। দাঁড়িয়ে থেকে সেটা সীমানা ছাড়া করে জয়ের আনন্দে মেতে ওঠেন লঙ্কান অলরাউন্ডার পেরেরা। সেই সঙ্গে আনন্দ সীমা ছাড়ায় রংপুর রাইডার্সের।

৩ উইকেটে ম্যাচটা জিতে পয়েন্ট টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠে এলো রংপুর রাইডার্স। আর আট ম্যাচে দুই জয় নিয়ে তলানিতেই পড়ে থাকল চিটাগং ভাইকিংস।১৭৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়েছিল রংপুরের। ক্রিস গেইল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম মিলে যোগ করেন ৩০ রান। ষষ্ঠ ওভারের দ্বিতীয় বলে ম্যাককালামকে ফেরান আল আমিন। কিউই এই ব্যাটসম্যান ২০ বলে করেন ১৫ রান। রানের চাকাটা ধীর বলে আজ ব্যাট হাতে তৃতীয় স্থানে নেমে পড়েন অধিনায়ক মাশরাফি!দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে গেইলকে নিয়ে যোগ করেন ৬০ রান, যেখানে মাশরাফির অবদান ১৭ বলে ৪২ রান! মাশরাফি ফেরার পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি গেইলও। ২৫ বলে ৩৩ রান করে তানভীর হায়দারের বলে লুক রঞ্চির তালুবন্দি হন ক্যারিবীয় ব্যাটিং দৈত্য।গেইল আউট হওয়ার পর রবি বোপারা রংপুরের স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ১১ রান। মোহাম্মদ মিঠুন অবশ্য চেষ্টা করেছিলেন। ১৯তম ওভারে লুইস রিসের বলে আউট হয়ে ফিরে আসেন তিনি। ২৯ বলে ৪৪ রান করেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান।এর আগে প্রথমে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৬ রান করে চিটাগং ভাইকিংস।

আজ শুরুতেই লুক রঞ্চিকে হারায় স্বাগতিকরা। ৫ বলে ১১ রান করেন সাবেক এই কিউই ব্যাটসম্যান। চতুর্থ ওভারে এনামুল হক বিজয়ও ডাগ আউটে ফিরে যান। ৩০ রানে দুই উইকেট হারানো চিটাগং সৌম্য সরকারের ব্যাটে স্কোরবোর্ড সচল রেখেছিল। তবে দলীয় ৫৬ রানে নাহিদুলের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে আসেন সৌম্য। ২৬ বলে ৩০ রান করেন তিনি।এরপর সিকান্দার রাজা ও স্টিয়ান ভ্যান জাইল রংপুরের বোলারদের পাল্টা আক্রমণ করেন। মাত্র ৪০ বলে ৬৮ রান করেন ভ্যান জাইল। ১৯ বলে ২২ রান করেন রাজা। দলীয় ১৬৫ রানে ভ্যান জাইল ফিরে গেলে নাজিবুল্লাহ জাদরানের ১৪ বলে ২১ রানের ক্যামিও ইনিংসে ১৭৬ রান সংগ্রহ করে চিটাগং।

Share.

Leave A Reply