মিয়ানমারের রাখাইনে হিন্দুদের গণকবর

0
83

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মিয়ানমারের রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন প্রদেশে এবার এমন একটি গণকবর খুঁজে পাওয়া গেছে, যেখানে শুধু হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মৃতদেহ রয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির সেনাবাহিনী।তারা বলছে, রোহিঙ্গা মুসলিম জঙ্গিরা এইসব হিন্দুদের হত্যা করে গণকবর দিয়েছে। যদিও বিশ্লেষকসহ অনেকে মনে করছেন, জাতিগত নিধন চালিয়ে বিশ্বসম্প্রদায়ের তোপের মুখে পড়ে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এখন ভিন্ন পন্থা অবলম্বনের মাধ্যমে বার্তা দিতে চাইছে।তাছাড়া এলাকাটিতে চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবার কারণে সেনাবাহিনীর এই অভিযোগ যাচাই করা সম্ভব হয়নি। রাখাইনে গত পঁচিশে অাগস্ট থেকে সহিংসতা শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত চার লাখ ত্রিশ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। যাদের মধ্যে বহু সংখ্যক হিন্দু ধর্মাবলম্বীও রয়েছেন। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে পোস্ট করা এক বিবৃতি থেকে জানা গেছে, উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন প্রদেশের একটি গ্রাম থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা একটি গণকবর খুঁড়ে মোট আটাশটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। এদের সবাই হিন্দু ধর্মাবলম্বী, বেশীরভাগই নারী।জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার প্রধান ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি বলেছেন, নির্মম হত্যাকাণ্ড, ধর্ষণ এবং বাড়িঘর আগুনে জ্বালিয়ে দেয়ার কারণে রোহিঙ্গারা আতঙ্ক আর উদ্বেগে দিন কাটাচ্ছে। রাখাইনে চলমান সহিংসতাকে ‘জাতিগত নিধন’ বলে বর্ণনা করেছে জাতিসংঘ। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে মিয়ানমারের সরকার। বিবিসি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here