রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সমর্থন চাইলেন প্রেসিডেন্ট

0

রোহিঙ্গাদের নিজস্ব আবাসভূমি রাখাইন রাজ্যে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টির জন্য যুক্তরাজ্যসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, বিভিন্ন সংস্থা ও রাষ্ট্রের অব্যাহত সমর্থন চেয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে কনজার্ভেটিভ ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশের (সিএফওবি) নয় সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে। এ সময় তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ অত্যন্ত ছোট একটি দেশ হওয়া সত্ত্বেও মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক চরম নৃশংসতার শিকার রোহিঙ্গাদের মানবিক কারণে এ দেশে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।এই সাক্ষাৎ শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের বিরুদ্ধে জোরালো বক্তব্য দেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ব্রিটিশ সরকারের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে তার সম্পর্ককে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে থাকে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালে ব্রিটিশ সরকার ও সেদেশের জনগণের সমর্থন এবং পরবর্তীকালে এখানে উন্নয়ন কার্যক্রমে সহায়তার কথাও অত্যন্ত কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন।ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য অ্যানি মেইনের নেতৃত্বাধীন নয় সদস্যের প্রতিনিধিদলটি রোহিঙ্গার বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত বিভিন্ন বাস্তবধর্মী পদক্ষেপের প্রশংসা করে। এর আগে তারা কক্সবাজার সীমান্তবর্তী বাংলাদেশ এলাকা এবং সেখানে অবস্থিত বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে। প্রতিনিধিদলের সদস্যরা জানান, বাংলাদেশ ও ব্রিটিশ সরকার এবং দুই দেশের জনগণের মধ্যে সেতু হিসেবে কর্মরত সিএফওবি উভয় দেশের মধ্যকার বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমে সমর্থন বজায় রাখবে।প্রতিনিধিদলে আরো রয়েছেন পাওল স্কুলি এমপি, উইল কুইন্স এমপি, সাবেক এমপি ডেভিড ম্যাকিন্টোশ ও সিএফওবির চেয়ারম্যান মেহফুজ আহমেদ।

Share.

Leave A Reply