শততম টেস্টে জয়ের হাতছানি

0

শততম টেস্টে দারুণ অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। চতুর্থ দিন শেষে শ্রীলংকা ১৩৯ রানে এগিয়ে। তাদের হাতে রয়েছে ২ উইকেট। বাংলাদেশের পক্ষে মোস্তাফিজ ও সাকিব তিনটি করে উইকেট পায়। মিরাজ ও তাইজুল একটি করে উইকেট পায়।

দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলংকার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২৬৮। স্বাগতিকরা ১৩৯ রানে এগিয়ে রয়েছে। শততম এ টেস্টে অসাধারণ এক জয়ের হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের সামনে।

শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্টের চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনের মতো দ্বিতীয় সেশনেও শুরুটা ভালো হয়েছে বাংলাদেশের। আর সেই ভালো শুরুকে কাজে লাগিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতির পর দ্বিতীয় সেশনে ছয়টি উইকেট তুলে নিয়ে এই টেস্টে চালকের আসনে অবস্থান করে টাইগাররা। তৃতীয় সেশনে বাংলাদেশের কাঁটা হয়ে দাঁড়ানো করুণারত্নেকে তুলে নেন সাকিব। এর আগেও সাকিব ডিকভেলাকে সাজঘরে পাঠান।

প্রথম ইনিংসে ১২৮ রানে পিছিয়ে থেকে ম্যাচের তৃতীয় দিন শুক্রবার বিকেলে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ফের ব্যাট করতে নামে শ্রীলংকা। তবে কোনো বিপদ ছাড়াই নির্বিঘ্নে দিনটি পার করেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান থারাঙ্গা ও করুণারত্নে। দিন শেষে দু’জনেই অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে। আর লংকার সংগ্রহ দাঁড়ায় কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫৪ রান।

এই অবস্থায় ম্যাচের চতুর্থ দিন শনিবার সকালে ফের ব্যাট করতে নামেন লংকার দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। তবে দিনের দ্বিতীয় ওভারে নিজের প্রথম বলেই থারাঙ্গাকে বোল্ড করে বাংলাদেশকে দারুণ শুরু এনে দেন মিরাজ।

দিনের দারুণ এই শুরু অবশ্য ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। দিনের দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারানো শ্রীলংকা এরপর আর কোনো উইকেট না হারিয়েই পার করে দেয় প্রথম সেশনের খেলা। পাশাপাশি প্রথম ইনিংসে ১২৮ রানে পিছিয়ে থাকা লংকানরা ঘাটতি পূরণ করে ৮ রানের লিড নিয়ে যায় মধ্যাহ্ন বিরতিতে।

তবে বিরতি থেকে ফেরার পর দ্বিতীয় ওভারেই বোলিংয়ে এসে লংকান ব্যাটসম্যান মেন্ডিসকে তুলে নেন মোস্তাফিজ। তার অফস্টাম্পের বাইরের বল মেন্ডিসের ব্যাট ছুয়ে উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসে গেলেও আউট দেননি মাঠের আম্পায়ার। পরে রিভিউতে বদলে যায় সিদ্ধান্ত। সাজঘরে ফেরার আগে মেন্ডিস করেন ৩৬ রান।

এরপর ব্যক্তিগত দশম ওভারে বোলিংয়ে এসে আবারও আঘাত হানে মোস্তাফিজ। এবার তার শিকার প্রথম ইনিংসে শতক তুলে নেওয়া দিনেশ চান্ডিমাল। উইকেটের পেছনে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে চান্ডিমাল করেন ৫ রান।

দলীয় ১৭৬ রানে আসেলা গুণারত্নেকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে দিনের চতুর্থ সাফল্য এনে দেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গুণারত্নে করেন ৭ রান।

পরের ওভারেই বোলিংয়ে এসে আবারও আঘাত হানেন মোস্তাফিজ। এবার তার শিকার ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। উইকেটের পেছনে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে তিনি কোনো রান করতে পারেননি।

দলীয় ১৯০ রানে আবারও শ্রীলংকার ইনিংসে আঘাত হানেন সাকিব। তার বলে সুইপ করেছিলেন নিরোশান ডিকওয়েলা। তবে আগেই বুঝতে পেরে ডানদিকে সরে যাওয়া উইকেটরক্ষক মুশফিক দারুণ দক্ষতায় গ্লাভসবন্দি করেন ডিকভেলার তুলে মারা বল। এর মধ্য দিয়ে শ্রীলংকার ষষ্ঠ উইকেটের পতন হয়। ডিকভেলা করেন ৫ রান। পরে করুণারত্নেতে তুলে নেন সাকিব। তিনি ১২৬ রান করেন।

বুধবার কলম্বোর পি সারা ওভাল স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া বাংলাদেশের শততম এই টেস্টে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলংকা। দিনেশ চান্দিমালের ১৩৮ রানের ইনিংসে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৩৩৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় স্বাগতিকরা।

জবাবে সাকিব আল হাসানের শতক এবং অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেন, উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের অর্ধশতকে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৪৬৭ রান করে সফরকারীরা। সাকিব করেন ১১৬ রান। এছাড়া মোসাদ্দেক ৭৫, সৌম্য ৬১ ও মুশফিক ৫২ রান করেন।

Share.

Leave A Reply

four + nine =