বাবাকে কুপিয়ে হত্যার পর ছেলের আত্মহত্যা

0

killed.jpg1ন্যাশনাল ডেস্ক :: পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় বাবা আব্দুল জলিলকে (৬০) কুপিয়ে হত্যার পর ছেলে মো. জহিরুল ইসলাম জহির (১৬) আত্মহত্যা করেছেন। উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের নাপিতখালী গ্রামে সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

আব্দুল জলিল উপজেলার নাপিতখালী গ্রামের বাসিন্দা এবং অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক। ছেলে মো. জহিরুল ইসলাম জহির স্থানীয় মিরুখালী কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার বিকেল ৪টার দিকে আব্দুল জলিলের সঙ্গে ছেলে জহিরুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় জহিরুল ধারাল দা দিয়ে বাবাকে কুপিয়ে জখম করে। স্বামীকে উদ্ধার করতে গিয়ে স্ত্রী ফিরোজা বেগমও ছেলের হাতে কোপ খান। পরে জহিরুল পালিয়ে যায়।
গুরুতর আহত দু’জনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল জলিলকে মৃত ঘোষণা করেন।
এর কিছুক্ষণ পর বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরে মিরুখালী গ্রামের নূরু ডাক্তার বাড়ির একটি গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে ছেলে জহিরুল।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share.

Leave A Reply

three + seven =